1. arjunkumer1977@gmail.com : Arjun :
  2. bd.dainikonlineshiksha@gmail.com : দৈনিক অনলাইন শিক্ষা :
  3. yesamahmud1986@gmail.com : Yousuf :
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞাপন নোটিশ :
* * সাংবাদিক নিয়োগ * * দৈনিক অনলাইন শিক্ষাতে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে *** স্বনামধন্য দৈনিক অনলাইন শিক্ষা / অনলাইন নিউজ পত্রিকাতে জেলা- উপজেলা পর্যায়ে সংবাদকর্মী আবশ্যক *** শুধুমাত্র আগ্রহী প্রার্থী সদ্যতোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি ও ভোটার আইডি কার্ড এর কালার এপিঠ ওপিঠ ফটোকপি এবং ইংরেজিতে সিভি গ্রহণযোগ্য নয়, শুধুমাত্র বাংলায় লেখা জীবন বৃত্তান্ত সিভি পাঠান দৈনিক অনলাইন শিক্ষার এই জিমেইল নাম্বারে- bd.dainikonlineshiksha@gmail.com *** আরো বিস্তারিত তথ্যের জন্য ও দৈনিক অনলাইন শিক্ষাতে সংবাদকর্মী হিসেবে নিয়োগ পেতে সরাসরি দৈনিক অনলাইন শিক্ষার সম্পাদকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করুন- 01886 - 902317 ** সকল প্রকার নিউজ পাঠান দৈনিক অনলাইন শিক্ষার এই জিমেইল নাম্বারে-dainikonlineshiksha@gmail.com শিক্ষাবিষয়ক ওয়েবসাইট দৈনিক অনলাইন শিক্ষা / সত্য প্রকাশে আপোসহীন **

ছয় মাস ধরে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে ১০৭ শিক্ষার্থীর

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২২
  • ৬৫ ৭১৫ বার পড়া হয়েছে

ছয় মাস ধরে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে ১০৭ শিক্ষার্থীর।

নিজস্ব প্রতিবেদক –

জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে দুর্ঘটনার আশঙ্কায় জরাজীর্ণ বিদ্যালয় ভবনকে পরিত্যক্ত ঘোষণার পর খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে শিক্ষার্থীদের। আলাদা কক্ষ না থাকায় কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে এই ব্যবস্থা নিয়েছেন উপজেলার শাখারুঞ্জ চৌধুরীপাড়া আলিয়া তফিজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। তাঁরা জানান, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য ছয় মাস ধরে এভাবেই পাঠদান চলছে। প্রতিদিন খোলা আকাশের নিচে চেয়ার-টেবিল ও বেঞ্চ আনা-নেওয়া করতে গিয়ে বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অভিভাবকরা জানান, উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের এই বিদ্যালয় ভবনটি ২০০০ সালে নির্মাণ করা হয়। নির্মাণের মাত্র ২২ বছরের মধ্যেই ভবনটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। এর ছাদ এবং গ্রেড বিমে দেখা দিয়েছে ফাটল। মাঝেমধ্যেই দেয়াল থেকে খসে পড়ছে পলেস্তারা। দেবে গেছে ঘরের মেঝেও। বিকল্প ব্যবস্থা করতে না পেরে ঝুঁকি নিয়েই প্রতিদিন ১০৭ জন শিক্ষার্থী এই বিদ্যালয়ে নিয়মিত পড়াশোনা করছে। যেখানে তাদের নিয়মিত পাঠদান করছেন পাঁচজন শিক্ষক।

দুর্ঘটনার আশঙ্কার বিষয়টি জেলা ও উপজেলা কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হলে প্রকৌশল বিভাগের উচ্চতর একটি তদন্তদল ভবনটি পরিদর্শন করে। গত ৬ এপ্রিল তারা বিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভবনটিকে ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়ে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে। এরপর কক্ষসংকটের কারণে বিদ্যালয় মাঠে সাময়িকভাবে একটি টিনের বেড়ার ঘর নির্মাণ করা হলে গরমে হাঁসফাঁস করে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। তাই বাধ্য হয়ে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। তবে প্রচণ্ড রোদ ও বৃষ্টির দিনে ব্যাহত হচ্ছে বিদ্যালয়ের পড়ালেখার কার্যক্রম।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মেহেদি হাসান বলেন, ‘পরিত্যক্ত ঘোষণার পর শিক্ষার্থীদের খোলা আকাশের নিচে পাঠদান করাচ্ছি। প্রতিদিন ভারী ভারী বেঞ্চ আনা-নেওয়ার করতে গিয়ে আমাদের খুবই সমস্যা হচ্ছে। ’

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমা বানু বলেন, ‘শ্রেণিকক্ষ সংকটের কারণে পাঠদান কার্যক্রমে মারাত্মক বিঘ্ন ঘটছে। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কারণে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চললেও ঝুঁকি নিয়ে পরিত্যক্ত ভবনেই আমাদের প্রশাসনিক কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। মাঝেমধ্যেই কক্ষের মধ্যে ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। ’

ক্ষেতলাল উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক শাহ বলেন, ‘ভবনের ভগ্নদশার কারণে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য ছয় মাস আগে তা পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। ফলে বিদ্যালয়ের শিশু শিক্ষার্থীদের বাইরে পাঠদান চলছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। আশা করি, তারা শিগগরিই ব্যবস্থা গ্রহণ করবে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
দৈনিক অনলাইন শিক্ষা-অনলাইন নিউজ পত্রিকার যে কোনো লেখা, বা, ছবি, ও ভিডিও , অনুমতি ছাড়া কপি করা , বা, বে-আইনি ভাবে ব্যবহার করা আইনিভাবে দণ্ডনীয় অপরাধ। © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত- ২০১৫
ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট
আপনার পছন্দের ভাষা পরিবর্তন করুন Translate »